ঢাকা সোমবার, ২১শে অক্টোবর ২০১৯, ৭ই কার্তিক ১৪২৬


শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলায় শেখ সেলিমের নাতি নিহত!


২২ এপ্রিল ২০১৯ ০১:০০

আপডেট:
২১ অক্টোবর ২০১৯ ১৪:৫৬

শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলায় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সংসদ সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমের শিশু নাতি নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে মেয়েজামাই।

আজ রোববার সকালে শ্রীলঙ্কার একাধিক স্থানে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

নিহত শেখ জায়ান চৌধুরী শেখ সেলিমের মেয়ে শেখ আমেনা সুলতানা সোনিয়ার ছেলে। আহত হয়েছে জায়ানের বাবা মশিউল হক চৌধুরী প্রিন্স।

এর আগে সন্ধ্যা পর্যন্ত নিখোঁজ ছিল শিশু জায়ান। রাতে শিশুটির মৃত্যুর খবর পায় পরিবারের সদস্যরা। এই খবরে তারা কলম্বোর উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন বলে একাধিক গণমাধ্যমে জানিয়েছে।

সংসদ সদস্য শেখ সেলিম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফুপাতো ভাই। সেলিমের মেয়ে শেখ সোনিয়া তাঁর স্বামী মশিউল হক চৌধুরী প্রিন্স ও দুই ছেলেকে নিয়ে শ্রীলঙ্কায় বেড়াতে গেছেন। তাঁরা উঠেছিলেন কলম্বোর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে। বোমা হামলার সময় হোটেলের নিচতলার রেস্টুরেন্টে খেতে গিয়েছিলেন মশিউল হক চৌধুরী ও তাঁর ছেলে জায়ান চৌধুরী। অন্যদিকে বড় ছেলে জোহানকে নিয়ে শেখ আমেনা ছিলেন হোটেলের ছয়তলার একটি কক্ষে। ফলে হামলা থেকে বেঁচে গেছেন তারা।

এদিকে বার্তা সংস্থা বাসস জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বর্তমানে ব্রুনাইয়ে সরকারি সফরে আছেন। সন্ধ্যায় দেশটির রাজধানী বন্দর সেরি বেগাবানের এম্পায়ার হোটেল অ্যান্ড কান্ট্রি ক্লাবে প্রবাসী বাংলাদেশিদের দেওয়া এক গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘শ্রীলঙ্কার আটটি স্থানে সংঘটিত বোমা হামলায় বহু লোক নিহত ও আহত হয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘আমি এই বর্বরোচিত ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই।’

এ প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আরেকটি দুঃখজনক ঘটনা হলো শেখ ফজলুল করিম সেলিমের মেয়ের পরিবার শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলার শিকার হয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘সেলিমের মেয়েজামাই ও নাতি এ সময় একটি রেস্টুরেন্টে খাচ্ছিলেন। সেখানে একটি বোমা বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণে মেয়েজামাই আহত হন এবং আজ বিকেল পর্যন্ত নাতির কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।’

রোববার ইস্টার সানডের প্রার্থনার মধ্যে তিনটি গির্জা ও তিনটি হোটেলসহ আটটি স্থানে বোমা হামলা হয়। এর মধ্যে হোটেল শাংরি-লার রেস্তোরাঁয় সকালের নাস্তার ভিড়ের সময়ে বোমা বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।